মোঃ রুবেল মিয়া(স্টাফ রিপোর্টার)

টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার ভাতগ্রাম ইউনিয়নের দুল্যা মুনসুর গ্রামের জয়নাল মিয়ার বাড়ির সামনে ব্রিজের পার ঘেষে পুকুর থেকে বুধবার সকাল প্রায় সাড়ে ৮ টার দিকে ভাসমান অবস্থায় রঞ্জিত কুমার রায় (৩৫) নামের এক এনজিও কর্মকর্তার লাশ উদ্ধার করেছে মির্জাপুর থানা পুলিশ।নিহত রঞ্জিত কুমার রায় এর বাড়ি ঠাকুরগাঁও জেলার কোষা মন্ডল পাল গ্রামে। তার বাবার নাম অতুল পাল।রঞ্জিত দিশা এনজিও মির্জাপুর শাখার সিনিয়র ক্রেডিট অফিসার (এস.সি.ও) হিসেবে কর্মরত ছিলেন। এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ ২ জনকে আটক করেছে।

দিশা এনজিও মির্জাপুর শাখার ব্রাঞ্চ ম্যানেজার রওশন আলম,এরিয়া ম্যানেজার ছাবেদুল হক ও এলাকাবাসীর সূত্রে জনাগেছে,গতকাল মঙ্গলবার (১৯ নভেম্বর) বেলা প্রায় সাড়ে ১২ টার দিকে রঞ্জিত এনজিওর টাকা কালেকশন করতে দুল্যা গ্রামে যায়। বাবুল দেওয়ানের মুদি দোকানে তার বাই সাইকেল ও প্রয়োজনীয় কাগজ পত্রের ব্যাগ রেখে ঐ গ্রামের আকবর আলীর ছেলে সানোয়ারের বাড়িতে সর্বপ্রথম কিস্তির জন্য যায়। কিন্তু তারপর বেলা ১টার সময় থেকেই তার ফোন বন্ধ থাকে। দুপুর পেরিয়ে যাওয়ায় এবং ফোন বন্ধ পাওয়ায় দিশা এনজিও কর্তৃপক্ষ রঞ্জিতের খোঁজ নিতে ৪ সদস্যকে ঐ গ্রামে পাঠায়। কিন্তু গ্রামে গিয়ে তার কোনো সন্ধান মেলেনি।রঞ্জিতের কোনো সন্ধান না পেয়ে রাত আনুমানিক ৮ টা বা সাড়ে ৮ টার দিকে মির্জাপুর থানায় দিশা এনজিও কর্তৃপক্ষ একটি জি.ডি দেন।পরে রাত সাড়ে ১১ টার দিকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সানোয়ারকে আটক করে পুলিশ।

বুধবার (২০ নভেম্বর) সকালে লাশটি জয়নাল মিয়ার বাড়ির সামনে ব্রিজের নিচে পুকুরে ভাসমান অবস্থায় দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয় এলাকাবাসী। সকাল সাড়ে ৮ দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে পুকুর থেকে লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ। পরে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সানোয়ারের ভাই আনোয়ারকেও আটক করা হয়।

এ ব্যাপারে ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে মির্জাপুর থানা অফিসার ইনচার্জ মো.সায়েদুর রহমান সাংবাদিকদের বলেন,লাশ উদ্ধার করে সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হবে। সন্দেহভাজন দুজনকে আটক করা হয়েছে। তদন্ত স্বাপেক্ষে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। মামলা প্রক্রিয়াধীন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here