নাটোরের গুরুদাসপুরে এক মাদ্রাসাছাত্রীর সাথে মোবাইল ফোনে প্রেম শুরু। এরপর বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে দশ দিন কৌশলে নানার বাসায় আটকে রাখে প্রেমিক রাসেল (২৫)। এ সুযোগে রাসেল ও তার বন্ধু অন্তু বিশ্বাস (২২) ওই ছাত্রীকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় উপজেলার পৌর সদরের খামারনাচকৈড় খোয়ারপাড়া এলাকা থেকে ওই ছাত্রীসহ অভিযুক্তদের আটক করা হয়।

স্থানীয় সূত্রে যানা যায়, ঘটনার ৮ দিনের মাথায় বন্ধু অন্তুকে ডেকে নিয়ে ওই মেয়েকে ধর্ষণ করায়। সর্বশেষ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যার দিকে উপজেলার পৌর সদরের খামারনাচকৈড় খোয়ারপাড়া এলাকায় প্রেমিক রাসেল ওই ছাত্রীকে ভ্যানে তুলে বাড়িতে পাঠানোর চেষ্টা করলে মেয়েটি চিৎকার করতে থাকে। চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা মেয়েটির প্রেমিক রাসেলকে গণধোলাই দিয়ে ওভয়কেই গুরুদাসপুর থানা পুলিশের কাছে সোপর্দ করে।

গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি মোজাহারুল ইসলাম জানান, খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থল থেকে প্রেমিক-প্রেমিকাকে আটক করা হয়। দুই বন্ধু রাসেল এবং অন্তু বিশ্বাসকে জিজ্ঞাসাবাদের পর ঘটনার সত্যতা পাওয়া যায়। আজ শনিবার দুই বন্ধুকে ধর্ষণ মামলায় নাটোর জেলখানায় প্রেরণ করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here