স্টাফ রিপোর্টারঃ-
টাঙ্গাইলের মির্জাপুর পৌরসভার জনপ্রিয় মেয়র মো. সাহাদত হোসেন সুমনের মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারন সম্পাদক ও সড়ক পরিবহন এবং সেতু মন্ত্রী মো. ওবায়দুল কাদের এমপি। মির্জাপুর উপজেলা আওয়ামীলগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও পৌর মেয়র সাহাদত হোসেন সুমনের মৃত্যুতে আজ মঙ্গলবার রাতে এক প্রেস বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে শোক বার্তায় মরহুম সাহাদত হোসেন সুমনের এর পবিত্র আত্বার মাগফেরাত কামনা এবং তার শোক-সন্তপ্ত পরিবার-পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। ওবায়দুল কাদেরের পক্ষে শোক বার্তা পাঠিয়েছেন দলের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিষ্টার বিপ্লব বড়–য়া।
সাহাদত হোসেন সুমন আজ মঙ্গলবার ভোরে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না নিল্লাহী ওয়া ইন্না ইলাহেী রাজিউন)। আজ মঙ্গলবার ভোর রাতে রাজধানী ঢাকার জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মারা যারা যান। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৪৮ বছর। তিনি ছিলেন আওয়ামীলীগের নিবেদিত প্রাণ জনপ্রিয় নেতা ও বিপুল ভোটে নির্বাচিত মেয়র। আওয়ামীলীগের দুঃসময়ে তিনি ছাত্রলীগ, যুবলীগ ও আওয়ামীলীগসহ সহযোগি সংগঠনকে জাগিয়ে তুলে ছিলেন। তার এই অকাল মৃত্যুতে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মো. শামীম আল মামুন জানান, মো. সাহাদত হোসেনের পিতার নাম মৃত মো. খোয়াজ উদ্দিন। গ্রামের বাড়ি মির্জাপুর পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের পুষ্টকামুরী গ্রামে। তার তিন ভাই ও চার বোন রয়েছে। তিন ভাইয়ের মধ্যে সাহাদত হোসেন সুমন ছিলেন ছোট। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, বৃদ্ধ মা ও দুই শিশুপুত্র, এক ভাই ও চার বোনসহ গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। তার ্পপন চাচাতো বড় ভাই বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ মো. একাব্বর হোসেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও টাঙ্গাইল-০৭ মির্জাপুর আসনের এমপি এবং মির্জাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি। মো. সাহাদত হোসেন সুমন মির্জাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক, মির্জাপুর সরকারী কলেজের সাবেক ভিপি, মির্জাপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও সভাপতি এবং মির্জাপুর প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও সভাপতি সভাপতি ছিলেন। রাজনীতির পাশাপাশি তিনি জাতীয় দৈনিক দৈনিক নয়া জামানা ও দৈনিক মানব জমিন পত্রিকার সাংবাদিক ছিলেন। এছাড়া বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তার মৃত্যুতে স্থানীয় সাংবাদিকদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।
গতকাল সোমবার তিনি অসুস্থ্য হয়ে পরলে প্রথমে ঢাকার ল্যাব এইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে হৃদরোগ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ মঙ্গলবার ভোর রাতে মারা যান।
সাহাদত হোসেন সুমনের অকাল মৃত্যুতে পরিবারের প্রতি শোক ও সমবেদনা জানিয়েছেন টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান সাবেক এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ফজলুর রহমান খান ফারুক, সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ও টাঙ্গাইল-০৭ মির্জাপুর আসনের এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ মো. একাব্বর হোসেন, সাবেক এমপি ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি মো. আবুর কালাম আজাদ সিদ্দিকী, জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য মো. জহিরুর ইসলাম জহির, টাঙ্গাইল জেলা ্আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এ্যাডভোকেট মো. জোয়াহেরুল ইসলাম জহের, কুমুদিনী ওয়েল ফেয়ার ট্রাষ্ট অব বেঙ্গল (বিডি) ব্যবস্থাপনা পরিচালক রাজিব প্রসাদ সাহা, পরিচালক শিক্ষা মিস প্রতিভা মুৎসুদ্দি, মির্জাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মীর শরীফ মাহমুদ, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা মীর এনায়েত হোসেন মন্টু, টাঙ্গাইল জেলা আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য ও টাঙ্গাইল জেলা চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাসটিজের সভাপতি খান আহমেদ শুভ, মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক, মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সায়েদুর রহমান, সহকারী কমিশনার (ভুমি) মো. মইনুল হক, মির্জাপুর প্রেস ক্লাবের সভাপতি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন, সাধারন সম্পাদক সোহেল মোহসীন শিপন, মির্জাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল, সাধারন সম্পাদক মো. নাজমুল ইসলাম, জাতীয় সাংবাদিক সংস্থার সভাপতি মো. মাজাহরুল ইসলাম শিপলু ও সাধারন সম্পাদক মো. জোবায়ের হোসেন প্রমুখ। আগামীকাল বুধবার বাদ জোহর মির্জাপুর শেখ রাসেল মিনি স্টেডিয়া

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here