স্টাফ রিপোর্টারঃ-
টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে রিপোর্টার্স ইউনিটির উপদেষ্টা, প্রেস ক্লাবরে সাবেক সাধারন সম্পাদক ও সভাপতি এবং পৌর সভার জনপ্রিয় মেয়র মো. সাহাদৎ হোসেন সুমনের অকাল মৃত্যুতে রিপোর্টার্স ইউনিটিতে শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার বাদ আসর মির্জাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির কার্যালয়ে এ শোক সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ মো. একাব্বর হোসেন এমপি। রিপোর্টার্স ইউনিটির সভাপতি মীর আনোয়ার হোসেন টুটুলের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, প্রধান অতিথি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ মো. একাব্বর হোসেন এমপি, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি খন্দকার মোফাজ্জল হোসেন দুলাল, মির্জাপুর সরকারি কলেজের সাবেক অধ্যক্ষ মো. সালাউদ্দিন আহমেদ বাবর, মির্জাপুর বাজার বণিক সমিতির সভাপতি মো. গোলাম ফারুক সিদ্দিকী, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ ওয়াহিদ ইকবাল ও উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক মো. মামীম আল মামুন প্রমুখ। পরে মেয়র সুমনের আত্বার মাগফিরাত কামনায় মিলাত ও দোয়া করা হয়। মিলাত ও দোয়া পরিচালনা করেন মির্জাপুর থানা মসজিদের পেশ ঈমাম হাফেজ মাওলানা মো. ফরিদ হোসাইন। এ সময় সাংবাদিক মো. খায়রুল করিম পাপন, মো. নাজমুল ইসলাম, মো. হোসনী যুবাইরী, মো. রায়হান সরকার রবিন, মো. সাজ্জাত হোসেন, মো. শাহ সৈকত মুন্না, ডি এম শামীম সুমন, মো. মোশারফ হোসেন, মোহাম্মদ মোজাম্মেল হক, মো. সাদিকুল ইসলাম সজিব, উত্তম বণিক, মো. সাদ্দাম হোসেন, শাহ বজলুর রশিদ বিজু, আজীবন সদস্য মো. আতোয়ার রহমান খান সাদত, মো. সাজেদুল ইসলাম ঝিলু ও শিল্পী খন্দকার হুমায়ুন কবীর উপস্থিত ছিলেন।
উল্লেখ্য যে, সাহাদৎ হোসেন সুমন গত মঙ্গলবার ভোর ৫ টায় রাজধানী ঢাকার জাতীয় হৃদরোগ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫২ বছর। মো. সাহাদৎ হোসেন সুমনের পিতার নাম মৃত মো. খোয়াজ উদ্দিন। গ্রামের বাড়ি মির্জাপুর পৌরসভার ১ নং ওয়ার্ডের পুষ্টকামুরী গ্রামে। তিনি মির্জাপুর রিপোর্টার্স ইউনিটির উপদেষ্টা, মির্জাপুর প্রেস ক্লাবের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও সভাপতি সভাপতি মির্জাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক, মির্জাপুর সরকারী কলেজের সাবেক ভিপি, মির্জাপুর উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও সভাপতি ছিলেন। রাজনীতির পাশাপাশি তিনি জাতীয় দৈনিক দৈনিক নয়া জামানা ও দৈনিক মানব জমিন পত্রিকার সাংবাদিক ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here