স্টাফ রিপোর্টারঃ-
প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেছেন, মান সম্মত প্রাথমিক শিক্ষা বিস্তারে মুজিব বর্ষে সারা দেশের ৭৬ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিশুদের দুপুরে পুষ্টিকর খাবার বিতরনের ব্যাবস্থা করা হবে। তিনি বলেন শিক্ষার মুল ভিত্তি হচ্ছে প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থা। শিশুদের প্রথম শিক্ষক হচ্ছেন তার মা। প্রাথমিক শিক্ষার গুনগত মান, ক্যারিকুলাম পরিবর্তন এবং শিক্ষকদের পাঠদানে দক্ষতা অর্জনের জন্য প্রশিক্ষনের ব্যবস্থা জোরদার হচ্ছে। তিনি আরও বলেন বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে জননেত্রী শেখ হাসিনার দক্ষ নের্তৃত্বে দুর্বার গতিতে উন্নয়নে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। তিনি আজ বৃহস্পতিবার টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে বাইমহাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শন এবং উপজেলা শিক্ষা অফিস আয়োজিত মান সম্মত প্রাথমিক শিক্ষা অর্জনে সচেতনতা মুলক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ সব কথা বলেন।
সকাল সারে নয়টায় প্রতিমন্ত্রী ও তার সহধর্মীনি বাইমহাটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিদর্শনে এলে প্রধান শিক্ষিকা মিসেস হোসনেয়ারা বেগমের দিক নির্দেশনায় ক্ষুদে শিক্ষার্থীরা তার সম্মানে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ দৃষ্টি নন্দন ড্রিস প্লে প্রদর্শন করেন। বিদ্যালয়ের শিক্ষার মান, নিয়ম-শৃঙ্খলা, শিক্ষার পরিবেশ ও ফলাফল দেখে সন্তোষ প্রকাশ করেন এবং বিদ্যালয়টি সারা দেশে রোড মডেল হিসেবে উন্নয়নের জন্য সার্বিক সহযোগিতার আশ^াস দিয়েছেন। বিদ্যালয় পরিদর্শন ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ ড্রিস প্লে দেখে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথিবৃন্দ উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা শিক্ষা অফিস আয়োজিত মান সম্মত প্রাথমিক শিক্ষা অর্জনে সচেতনতা মুলক মতবিনিময় সভায় যোগ দেন। প্রধান অতিথির বক্তৃতায় শিক্ষা প্রতি মন্ত্রী মো. জাকির হোসেন বলেন, ১৯৭৩ সালের পর অন্য কোন সরকার প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নের জন্য কাজ করেননি। জননেত্রী শেখ হাসিনা ২৬ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয় এক যোগে সরকারি করেছেন। শিশুদের বিনামুল্যে বই বিতরন, উপবৃত্তি প্রদান, নারীর ক্ষমতায়ন, মোবাইল ব্যাংকিংসহ প্রাথমিক শিক্ষার আমুল পরিবর্তন করা হচ্ছে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু ৩০ লাখ শহীদের রক্তের বিনিময়ে এ দেশ স্বাধীন করে গিয়েছেন বলেই আজ আমরা মন্ত্রী, এমপি, ডিসি, এসপি এবং ইউএনও হতে পেরেছি। বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়তে আমাদের এক সঙ্গে দেশ উন্নয়নে কাজ করে যেতে হবে এবং আজকের শিশুরাই ২০৪১ সালে এ দেশ নের্তৃত্ব দিয়ে এগিয়ে নিয়ে যাবে।
টাঙ্গাইলের জেলা প্রশাসক মো. শহীদুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, মির্জাপুর উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন, মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক, টাঙ্গাইল জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মো. আব্দুল আজিজ, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ঢাকা বিভাগের উপ পরিচালক মো. ইফতার হোসেন ভুইয়া, প্রাথমিক ও গণ শিক্ষা প্রতি মন্ত্রীর একান্ত সচিব মোহাম্মদ মিকাইল এবং সংসদ সদস্য ছোট মনির।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here