মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল ঃ-
টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে করোনা ভাইরাস সংক্রমন প্রতিরোধে বিদেশ ফেরত হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখা ১২৭ জনের বাড়িতে লাল পতাকা টানিয়ে দিয়েছেন উপজেলা প্রশাসন। আজ মঙ্গলবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. জোবায়ের হোসেন এবং উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাকসুদা খানম হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকা ১২৭ জনের বাড়ি বাড়ি গিয়ে এ লাল পতাকা টাঙ্গিয়ে দিয়েছেন। করোনা ভাইরাস সংক্রমন প্রতিরোধ ও জনসচেতনা মুলক বিভিন্ন কর্মসুচী মির্জাপুর পৌরসভা, জামুর্কি, মহেড়া, ফতেপুর, বানাইল, আনাইতারা, ওয়ার্শি, ভাদগ্রাম, ভাওড়া, বহুরিয়া, গোড়াই, লতিফপুর, আজগানা এবং বাঁশতৈল ইউনিয়নে গ্রহন করা হয়েছে বলে মির্জাপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক ও মির্জাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. সায়েদুর রহমান জানিয়েছেন।
এদিকে গনজমায়েত না করার জন্য বিভিন্ন এলাকার হাট-বাজার ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার জন্য জরুরী বিজ্ঞপ্তি জারি করেছেন উপজেলা নির্বাহী অপিসার। অতি-মুনাফালোভি ব্যবসায়ী বিভিন্ন হাট-বাজারে চাল, ডাল, পিয়াজসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় বিভিন্ন সামগ্রী কৃত্তিম সংকট সৃষ্টি করে বেশী দামে বিক্রি করে আসছিল। গোপন সংবাদ পেয়ে মোবাইল কোর্ট অভিযান চালিয়ে সোহাগপুর বাজারের ব্যবসায়ী লুৎফর রহমানকে ২০ হাজার টাকা, বিপ্লব সরকারকে ৩০ হাজার টাকা, রতন সরকারকে ৩০ হাজার টাকা, শরিফুল ইসলামকে ৩০ হাজার টাকা, মির্জাপুর বাজারের ব্যবসায়ী মামুনকে ১০ হাজার টাকা, মঞ্জুর হোসেনকে ৫ হাজার টাকা, দীপক সরকারকে ৫ হাজার টাকা, দেওহাহাটা বাজারের ব্যবসায়ী শফিকুর ইসলামকে ১০ হাজার টাকা, নিখিল বাকালীকে ৫ হাজার টাকা এবং হুমায়ুন মিয়া ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া বিদেশ থেকে আসার পর হোম কোয়ারেন্টাইনে না থাকার অভিযোগে বাইমহাটি গ্রামের জাকির হোসেনকে ১০ হাজার টাকা এবং গোড়াইল গ্রামের রজব সিদ্দিকীকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here