ad cb under

মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল ॥
টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে ঢাকা ফেরত এক নারীসহ দুই করোনা রোগী সনাক্ত হয়েছেন। নিরাপত্তার জন্য ১০০ বাড়ি লগডাউন করা হয়েছে। এরা হলেন জামুর্কি ইউনিয়নের সাটিয়াড়া গ্রামের সুকুমার রাজবংশীর ছেলে আনন্দা রাজবংশী (৩০) এবং অপরজন হলেন ভাওড়া ইউনিয়নের এমারত হোসেনের স্ত্রী রেনু বেগম(২৭)। আজ মঙ্গলবার উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাকসুদা খানম বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এছাড়া করোনায় আক্রান্ত এক ব্যক্তি রাজবাড়ী থেকে মির্জাপুরের সীমান্তবর্তী ধামরাই এলাকায় শ^শুর বাড়ি এসে আশ্রয় নেওয়ায় মির্জাপুর উপজেলার ওয়ার্শী ইউনিয়নের দেউলীপাড়া এলাকায় ২৫ বাড়ি লগডাউন করে দেওয়া হয়েছে।তাকে রাজধানী ঢাকার মুগদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিস (সরকারী হাসপাতাল ) সুত্র জানায়, মির্জাপুরে এ পর্যন্ত ১৫২ জনের রক্তের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এর মধ্যে তিন জনের রক্তে করোনা পজিটিপ ধরা পরে। এর আগে নারায়নগঞ্জ ফেরত ভাওড়া গ্রামের অখিল সরকার করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। তিনি বাংলাদেশ কুয়েত মৈত্রী সরকারী হাসপাতালের আইসোলেশনে ১৫ দিন থাকার পর সুস্থ্য হয়ে বাড়ি এসেছেন। গতকাল ২৭ এপ্রিল করোনায় আক্রান্ত আনন্দ রাজবংশী ঢাকায় জুয়েলারীর দোকানে স্বর্নের কাজ করতেন এবং রেনু বেগম ঢাকায় বোনের বাসায় থাকতেন। গত ২৫ এপ্রিল এই দুই জন বাড়ি আসলে আশপাশের লোকজন বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক এবং উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাকসুদা খানমকে জানান। খবর পাওয়ার পর উপজেলা সরকারী হাসপাতালের স্বাস্থ্য সহকারীগন দুইজনের বাড়ি গিয়ে রক্তের নমুনা সংগ্রহ করে ঢাকার আইইডিআর এ পাঠানো পাঠান। গতকাল সোমবার তাদের রক্তের রিপোর্টে পজিটিপ আসে। উপজেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় তাদের টাঙ্গাইল শেখ হাসিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসোলেশনে পাঠানো হয়। করোনায় আক্রান্ত দুইজনের বাড়ি ঘনবসতি হওয়ায় তাদের বাড়ির আশপাশের ১০০শ বাড়ি লগডাউন করা হয়েছে।
এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আবদুল মালেক ও উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. মাকসুদ খানম বলেন, করোনায় আক্রান্ত দুইজন ঢাকা ফেরত ছিলেন। তাদের আইসোলেশনে পাঠানো হয়েছে। লগডাউনে থাকা পরিবারগুলোকে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানদের সহযোগিতা নিয়ে উপজেলা প্রশাসেনর পক্ষ থেকে খাবার ব্যবস্থাসহ সকল প্রকার সুযোগ সুবিধা দেওয়া হচ্ছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here