ad cb under

মীর আনোয়ার হোসেন টুটুল ॥
শাহনাজ আক্তার চৈতি (২১) নামে এক সন্তানের জননী গৃহবধু ফাঁস দিয়ে আতœহত্যা করেছেন। আজ বুধবার টাঙ্গাইলের মির্জাপুর উপজেলার জামুর্কি ইউনিয়নের পাকুল্যা পশ্চিমপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পর গৃহবধুর স্বামী লাভুসহ শ^শুর লাভলু মিয়া পলতাক রয়েছেন।
গৃহবধু শাহনাজ আক্তার চৈতির পারিবারিক সুত্র জানায়, গত দুই বছর পুর্বে পাকুল্যা পশ্চিমপাড়া গ্রামের লাভুর সঙ্গে ভালবেসে বিয়ে করে চৈতি। চৈতির বাপের বাড়ি পাশ^বর্তী দেলদুয়ার উপজেলার ডুবাইল গ্রামে। দুই বছরের দাম্পত্য জীবনে তাদরে সংসারে এক সন্তান রয়েছে। পারিবারিক কলহের জের ধরে স্বামীর সঙ্গে অভিমান করে চৈতি ফাঁস দিয়ে আতœহত্যা করেছে বলে আশপাশের লোকজন এবং পুলিশ ধারনা করেছেন।
এ ব্যাপারে মির্জাপুর থানার সহকারী উপ পরিদর্শক হাবিবুর রহমান উকিল বলেন, গৃহবধুর লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে ধারনা করা হচ্ছে গৃহবধু চৈতি ফাঁস দিয়ে আতœহত্যা করেছে। হত্যার কারন জানতে তদন্ত চলছে। থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here