না ফেরার দেশে চলে গেলেন অভিনেত্রী শ্রীদেবী

0
8

বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীদেবী আর নেই। শনিবার দিবাগত রাত সাড়ে ১১টার দিকে দুবাইয়ের একটি হাসপাতালে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৫৪ বছর। অভিনেত্রীর মৃত্যু এখনও পর্যন্ত বিশ্বাস করতে পারছেন না তার অগণিত ভক্ত দর্শক থেকে শুরু করে তার কাছের তারকারাও। আর তাই শ্রীদেবীর মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে বলিউডে।

হিন্দি চলচ্চিত্রে প্রথম নারী সুপারস্টার হিসেবে বিবেচিত শ্রীদেবী ১৯৯৬ সালে চলচ্চিত্র প্রযোজক বনি কাপুরের সঙ্গে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন। তাদের দুটি কন্যা সন্তান রয়েছে।

শ্রীদেবীর মৃত্যুর সংবাদটি গণমাধ্যমে জানিয়েছেন তার স্বামীর ছোট ভাই সঞ্জয় কাপুর। মৃত্যুর সময় এই নায়িকার পাশে ছিলেন তার স্বামী বনি কাপুর এবং ছোট মেয়ে খুশি কাপুর। ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে সঞ্জয় কাপুর জানান, ‘হ্যাঁ এটি সত্যি যে আমরা শ্রীদেবীকে হারিয়েছি।’

ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, শনিবার সন্ধ্যায় স্বামী বনি কাপুর ও ছোট মেয়ে খুশি কাপুরকে সঙ্গে নিয়ে দুবাইতে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন বলিউড ডিভা। হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। সেখানেই হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় তার। রীতেশ দেশমুখ, রাজ কুন্দ্রা, সুস্মিতা সেন সহ আরো অনেকেই টুইটারে শোকপ্রকাশ করেছেন শ্রীদেবীর অকাল প্রয়াণে।

শ্রীদেবী এমন একজন অভিনেত্রী ছিলেন, যিনি তামিল, তেলেগু, হিন্দি, মালায়ালাম এবং কিছু কন্নড় সিনেমায় চুটিয়ে কাজ করেছেন। ১৯৬৭ সালে ‘আম্মা ইয়ানগার আয়াপ্পান’ সিনেমার মাধ্যমে তার সিনেমার যাত্রা শুরু। এর মাধ্যমে তিনি তার ক্যারিয়ার শুরু করেন শিশু শিল্পী হিসেবে। ভারতের অন্যতম সেরা নায়িকা ছিলেন তিনি। ২০১৩ সালে তাকে ভারতের চতুর্থ সর্বোচ্চ সম্মান পদ্মশ্রী পদকে ভূষিত করা হয়।

তার ঝুলিতে ৩০০টি সিনেমা রয়েছে। ৫০ বছরেরও বেশি সময় বক্স অফিসে রাজত্ব করেছেন শ্রীদেবী। অগণিত বলিউডের সিনেমায় তিনি তার অভিনয় দক্ষতার ছাপ রেখেছেন। সংসারে মনযোগি হয়ে যাওয়ার পর একটি দীর্ঘ বিরতি নিয়েছিলেন তিনি। পরে ২০১২ সালে ‘ইংলিশ ভিংলিশ’ সিনেমার মাধ্যমে বলিউডে কামব্যাক করেছিলেন তিনি। ২০১৭ সালে শ্রীদেবীর ‘মম’ ছবিটি বক্স অফিসে যথেষ্ট সাফল্য পেয়েছিল। এটিই তার শেষ সিনেমা।

শ্রীদেবীর মৃত্যুর সময় ছোট মেয়ে খুশি মায়ের পাশে থাকলেও জাহ্নবী শুটিংয়ের কাজে এখন মুম্বাইতে। মায়ের অকাল প্রয়াণে দুই মেয়েই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। ভেঙে পড়েছেন বনি কাপুরও।

মাওয়ালি, মিস্টার ইন্ডিয়া, চাঁদনী, তোহফাসহ বিপুল সংখ্যক চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য বিপুল প্রশংসা পেয়েছেন শ্রীদেবী। ১৯৬৭ সালে শিশুশিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্রে যাত্রা শুরু হয় শ্রীদেবীর। এরপর তিনি হিন্দি চলচ্চিত্র ছাড়াও তামিল, তেলুগু, মালয়ালম এবং কিছু সংখ্যক কন্নড় চলচ্চিত্রে কাজ করেছেন।

Loading...
(Visited 92 times, 1 visits today)