লামায় ভাবির লাঠির আঘাতে দেবরের মৃত্যু

বান্দরবানের লামার ফাইতং ইউনিয়নে ভাবির লাঠির আঘাতে দেবরের মৃত্যু হয়েছে। নিহত মো. আমিরুল ইসলাম (২৮) ইউনিয়নের চিউরতলী মালিচাঁন ঝিরির লিয়াকত আলীর ছেলে।

রবিবার দুপুরে নিহতের লাশ চমেক হাসপাতাল থেকে ময়নাতদন্ত শেষে লামার উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছে বলে নিশ্চিত করেছেন লামা থানা অফিসার ইনচার্জ আনোয়ার হোসেন।
জানা গেছে, বাড়ির গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে বড় ভাই মো. রবিউল (৩৩) ও স্ত্রী মোছাং আম্বিয়া বেগম (২৫) এর সাথে শনিবার বিকেলে ঝগড়া হয় আমিরুলের। এসময় বড় ভাইয়ের স্ত্রী মোছাং আম্বিয়া বেগম গাছের লাঠি দিয়ে আমিরুলের মাথায় জোরে আঘাত করলে মাথা ফেটে প্রচন্ড রক্তপাত হতে থাকে। বাড়ির লোকজন দ্রুত তাকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে নিয়ে যায়। রাত ৯ টায় চমেক হাসপাতালে পৌঁছালে জরুরি বিভাগের দায়িত্বরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করে। রবিবার নিহতের ময়নাতদন্ত শেষে লাশ তার পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়। সন্ধ্যায় আমিরুলের দাফনের কাজ সম্পন্ন হবে বলে তার পরিবার থেকে জানানো হয়েছে।

এদিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আমিরুলের মৃত্যু হয়েছে এমন সংবাদ পেয়ে এলাকাবাসী নিহতের বড় ভাই মো. রবিউল ও তার স্ত্রী আম্বিয়া বেগমকে আটক করে লামা থানাকে খবর দেয়। খবর পেয়ে লামা থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক কৃষ্ণ দাশ সঙ্গীয় পুলিশ সদস্য নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। তিনি অপরাধীদের ধরতে পুলিশি অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলে প্রতিবেদককে জানিয়েছেন।
স্থানীয় ইউপি মেম্বার মো. আক্তার হোসেন মেহেরাজ বলেন, ঘটনাটি অত্যান্ত মর্মান্তিক। এত তুচ্ছ বিষয় নিয়ে মানুষ মানুষকে হত্যা করতে পারে আমার জানা ছিলনা।

Loading...
(Visited 10 times, 1 visits today)