নায়িকার নাভীতে নারিকেল ছুড়ে মারেন পরিচালক

দক্ষিণের নামকরা প্রযোজক-পরিচালক কে. রাঘবেন্দ্র রাওয়ের হাত ধরে ফিল্মে অভিষেক হয় তাপসি পান্নুর। তাপনি পান্নু তাকে ব্রেক দেওয়া এই নামি সিনেমা নির্মাতার বিরুদ্ধে অস্বাভাবিক আচরণের অভিযোগ করেছেন। অভিযোগের একটি ভিডিও ক্লিপ অনলাইনে ছড়িয়ে পড়েছে।

আরো পড়ুন : বলিউডের ছয় ইঞ্জিনিয়ারের গল্প

তাপসি জানান, তার নির্মিত ছবিতে যৌন আবেদন সৃষ্টির জন্য অনেক সময় নায়িকার নাভীতে ফুল-ফল ছুড়ে মারতে দেখা গেছে। কিন্তু পরিচালকের এমন কাণ্ডকীর্তির কোনো কারণ তাপসি খুঁজে পাননি। তিনি বুঝতে পারেননি যে নির্মাতা রাঘবেন্দ্র রাওয়ের এমন মোহের পেছনে কী রয়েছে?

ভিডিওতে তাপসিকে বলতে শোনা যায়, শ্রীদেবীসহ অন্যান্য দক্ষিণী নায়িকাদের ছবিতে দেখা যায় তাদের নাভীতে ফুল বা ফল নিক্ষেপ করা হয়। এরপর আমারও পালা এলো। কিন্তু আমাকে এ জন্য আগে থেকে জানানো হয়নি বা এমন হতে পারে যে আমি এর জন্য প্রস্তুতও ছিলাম না… কিন্তু আমার পরিচালক আমার নাভীতে রীতিমতো নারিকেল ছুড়ে মারেন। আমি জানি না যে আমার নাভীতে নারিকেল ছুড়ে মেরে কী ধরনের যৌনতা দেখানো গেল!

ছবি : কে. রাঘবেন্দ্র রাওয়ের সিনামার দৃশ্য

আরো পড়ুন : ২০১৫ সালে সবচেয়ে বেশি আয় করা বলিউডের ১০ ছবি

এর আগে অভিনেতা চিরঞ্জীবীও এক ইন্টারভিউতে মজাচ্ছলে বলেছিলেন, যদি আপনাদের ফল সম্পর্কে ধারণার দরকার হয় তবে একটি সিনেমা কে. রাঘবেন্দ্র রাওয়ের সঙ্গে করা উচিত। তিনি ফলফলারি নায়িকার নাভিতে ছুড়ে মারেন।

তার এই অদ্ভুত বাতিক সম্পর্কে ২০১৫ সালে এক টিভি ইন্টাভিউতে খোদ রাঘবেন্দ্র রাও বলেছিলেন, নায়িকাদের নাভীতে ফুল-ফল ছুড়ে মারার সঙ্গে কামুকতার কোনো সম্পর্ক নেই। বর্ষীয়ান এই চিত্র নির্মাতার দৃষ্টিতে এটা এক ধরনের ফ্যাশনই শুধু না, রুপালি পর্দায় এটা নারীদের সৌন্দর্য ফুটিয়ে তোলার এক প্রতীকী কায়দা বটে।

Loading...
(Visited 60 times, 1 visits today)