৩য় শ্রেণির ছাত্রীকে ধর্ষণ, খালু গ্রেফতার

পাবনার বেড়া পৌরসভার তেঘরী মহল্লায় এক শিশু শিক্ষার্থীকে (১০) ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে তার খালুর বিরুদ্ধে। গুরুতর অসুস্থ ওই শিশুকে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিশুটির খালু আমিনুল ইসলামকে (৩২) গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

এ ঘটনায় বুধবার বেড়া থানায় একটি মামলা হয়েছে। নির্যাতনের শিকার শিশুটি স্থানীয় একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের তৃতীয় শ্রেণির ছাত্রী।

পুলিশ ও স্বজনরা জানান, বেড়া উপজেলার হরিরামপুর গ্রামের আব্দুল কাদের ফকিরের ছেলে আমিনুল ইসলাম বেড়া পৌর সদরের তেঘরী মহল্লার কাজেম ফকিরের মেয়েকে বিয়ে করে তার বাড়িতে ঘরজামাই থাকেন। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় একই মহল্লার পাশের বাড়ি থেকে ওই শিশুকে ডেকে নিয়ে মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করে তার খালু আমিনুল। এ সময় বাড়িতে কেউ ছিল না। ধর্ষণের পর ঘর থেকে বের হয়ে শিশুটি বাড়ির পাশে ডোবার পানিতে ঝাঁপ দেয়। এ সময় এলাকাবাসী শিশুটিকে উদ্ধার করে প্রথমে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। সেখানে প্রচুর রক্তক্ষরণ দেখে চিকিৎসক কারণ জানতে চাইলে শিশুটি ধর্ষণের ঘটনা খুলে বলে। পরে অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে বুধবার পাবনা জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

বেড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাফফর হোসেন জানান, খবর পেয়ে মঙ্গলবার রাতে অভিযুক্ত আমিনুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা বাদী হয়ে বুধবার সকালে থানায় একটি মামলা দায়ের করেছেন।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালের ইন্টার্ন চিকিৎসক আমিরুল ইসলাম জানান, শিশুটির প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়েছে। তার জরায়ুর স্থানে একটি ছিদ্র হওয়ায় অপারেশন করা হয়েছে। বর্তমানে শিশুটি আশঙ্কামুক্ত। তবে সুস্থ হতে কিছুদিন সময় লাগবে।

Loading...
(Visited 1 times, 1 visits today)