ধূমপানে পুরুষের চেয়ে নারীর ঝুঁকি কতটা বেশি?

0
233
Loading...

একসময় সিগারেটের প্যাকেটে লেখা থাকত ধূমপান স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর। আর এখন লেখা হচ্ছে ধূমপান মৃত্যু ঘটায়। প্যাকেটে জুড়ে দেয়া হচ্ছে নানা রোগাক্রান্ত ছবি। ধূমপান ও তামাকজাত দ্রব্যের প্রসারে বিজ্ঞাপন নিষিদ্ধ করা হয়েছে দেশে দেশে।

সিগারেটের প্যাকেটে যা-ই লেখা থাকুক, ধূমপান যে নারী-পুরুষ নির্বিশেষে শিশু, নারী, বৃদ্ধ সবার জন্য ক্ষতিকর তা বলার অপেক্ষা রাখে না। বর্তমান দুনিয়ার অধিকাংশ মানুষ ধূমপানজনিত নানা ব্যাধিতে আক্রান্ত। কেননা যিনি ধূমপান করেন তার আশপাশের মানুষও এর ক্ষতির শিকার হয়। তা সে নারী, শিশু কিংবা বৃদ্ধ হন।

ধূমপান পুরুষ ও নারীর জন্য কতটা ক্ষতিকর? প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে ধূমপানের কারণে পুরুষের চেয়ে বেশি ঝুঁকিতে পড়েন নারীরা।

১. স্তন ক্যানসার

ইংল্যান্ডের সবচেয়ে নামকরা মেডিকেল জার্নাল লেনসেটে একটি বৈজ্ঞানিক প্রবন্ধ প্রকাশিত হয়েছে। এতে বলা হয়েছে যে নারীদের যে স্তন ক্যানসার হয়, তার মূল কারণ পুরুষের ধূমপান। অর্থাৎ যেসব ঘরে পুরুষ ধূমপায়ী আছে, সেসব ঘরে নারীরা কিন্তু শিকার হতে পারেন। শিশুরাও ব্রঙ্কাইটিস, নিউমোনিয়া, হুপিং কফে আক্রান্ত হচ্ছে। এগুলো সবই প্যাসিভ স্মোকিংয়ে আক্রান্ত।

২. ফুসফুস ক্যানসারের দ্বিগুণ ঝুঁকি

নিউইয়র্ক ভিত্তিক এক গবেষণায় বলা হয়েছে, একজন নারীর পার্টনার যিনি ধূমপান করেন তার চেয়ে ফুসফুস ক্যানসার হওয়ার ঝুঁকি দ্বিগুণ বেশি নারীর। এর কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, ধূমপানে নারী ও পুরুষের শরীর ক্যানসার উৎপাদকের ক্ষেত্রে ভিন্নধর্মী প্রতিক্রিয়া করে। এ ক্ষেত্রে পুরুষের শরীর প্রস্রাবের মাধ্যমে ক্যানসার উৎপাদক জীবাণু বের করে দিতে পারে। আর নারীর দেহ সেটি পারে না। এটি কারসিনোজেনিক উপাদান হিসেবেই নারীর শরীরে থেকে যায়।

৩. নারীর হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ায়

ইংল্যান্ডের সবচেয়ে নামকরা মেডিকেল জার্নাল লেনসেটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ধূমপান পুরুষের চেয়ে নারীদের ২৫ ভাগ বেশি হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ায়। একজন পুরুষ ও নারী যদি ধূমপান চালিয়ে যান সেক্ষেত্রে পুরুষদের তুলনায় নারীদের হৃদরোগের ঝুঁকি প্রতিবছরই উল্লেখযোগ্য হারে বৃদ্ধি পায়।

৪. ধমনীতে মারাত্মক প্রভাব

ইউরোপভিত্তিক আরেক গবেষণায় পাওয়া গেছে, নারী-পুরুষের ধমনীতে যখন সমপরিমাণ তামাকের উপস্থিতি থাকে, সে ক্ষেত্রে পুরুষের তুলনায় নারীর মস্তিষ্কে রক্ত-সংবহনকারী প্রধান ধমনী দুটির একটি পাঁচ গুণ বেশি আক্রান্ত হয়।

৫. সন্তান জন্মদানে ঝুঁকি

ধূমপানের ধোঁয়ায় থাকা কার্বন মনোক্সাইড রক্তে মিশে গিয়ে গর্ভের সন্তানের ওপর সরাসারি প্রভাব ফেলে। ধূমপান নারীদের বন্ধ্যাত্ব ও গর্ভধারণের সমস্যার ঝুঁকি বাড়াতে পারে। গর্ভধারণের সময় যদি নারীরা ধূমপান করেন তাহলে অপরিপক্ব, মৃত শিশু জন্মদান কিংবা জন্ম নেয়া শিশুর মারা যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। ধূমপান নারীর স্তনে দুধের পরিমাণ কমিয়ে দেয়। যদিও ধূমপান পুরুষেরও সন্তান জন্মদান ক্ষমতা কমিয়ে দেয়। নারীদের ক্ষেত্রে এটি আরো প্রকট হয়। কারণ কেবল নারীরাই সন্তানদের পেটে ধারণ করে থাকেন।

৬. নারীস্বাস্থ্যের ক্ষতি

নতুন এক জরিপে দেখা গেছে নারীস্বাস্থ্যরে জন্য ধূমপানের ক্ষতির মাত্রা পুরুষদের চেয়ে অনেক বেশি। স্বল্প ধূমপান করেন এমন নারীদেরও হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুর ঝুঁকি অন্তত দ্বিগুণ। আমেরিকান হার্ট অ্যাসোসিয়েশেনের এক সাময়িকীর প্রতিবেদেনে বলা হয়েছে, ধূমপান নারীর জন্য খুবই ক্ষতিকর। নারীরা জীবন যাপনের ধরন কিছুটা পাল্টালে এই ঝুঁকি এড়াতে পারেন।

(Visited 24 times, 1 visits today)